বুধবার, জুন 19, 2024
HomeNewsAmbubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য

Ambubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য

 

Ambubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য

 

Ambubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য:  অম্বুবাচী উৎসব সনাতন হিন্দু ধর্মের বাৎসরিক উৎসব । আষাঢ় মাসে মৃগশিরা নক্ষত্রের তৃতীয় পদে শেষ হয়ে চতুর্থ পদে অম্বুবাচী শুরু হয়। তারপর থেকে তিন দিন অম্বুবাচী (Ambubachi) আচার পালন করা হয় ।মৃগশিরার নক্ষত্র পদে ঋতুমতি হন ধরিত্রী ।

Ambubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য
Ambubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য

মনে করা হয় অম্বুবাচীর পর ধরিত্রীও শস্য শ্যামলা হয়ে ওঠেন । ধরিত্রী আমাদের সকলের জন্মদাত্রী মাতা , তাই অম্বুবাচীর দিনে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোক অনেক কিছু নিয়ম পালন করে থাকে আর কিছু মানুষের মনে প্রশ্ন জাগে অম্বুবাচীর ইতিহাস (history)  কি বা তাৎপর্য কি? রয়েছে তা আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে বিস্তারিত রূপে জানবো।

অম্বুবাচীর ইতিহাস

অম্বুবাচীর ইতিহাস: প্রতিবছর আষাঢ় মাসের এই দিনটিতে তিনি ঋতুমতি হন । এই সময়টিকে বলা হয় অম্বুবাচী বা অমাবতী। অম্বুবাচীর তিনদিন কোন কৃষি কাজ করা হয় না যেকোনো মাঙ্গলিক অনুষ্ঠান বন্ধ রাখা হয় ।আসলে এই উৎসবের পালনের সাথে প্রকৃতির এক নিবিড় টান রয়েছে।

গ্রীষ্মের (summer) দাবধায়ে যখন সমস্ত উদ্ভিদ  শুকিয়ে যায় তখন আষাঢ় মাসের বর্ষার আগমনে ধরিত্রী আবার সৃষ্টি ক্ষমতা ফিরে পায়, তাই অম্বুবাচীর দিন যে কোন কৃষি কাজ বা মাটির কাজ বন্ধ রাখা হয়, যাতে বর্ষার জলে সিক্ত হয়ে বীজ থেকে নতুন চারা অঙ্কুরিত হতে পারে । বর্ষার জলে সিক্ত ধরিত্রী নতুন ফসল উৎপাদন করে তাই এই দিনটিকে অম্বুবাচী পুজো হিসাবে হিন্দু সম্প্রদায়ের ভক্তরা মানে।

Also Read- Click Here

অম্বুবাচী শব্দটি

অম্বুবাচী শব্দটি এসেছে অমাবতী থেকে এই নামও মা আবার নারী শক্তির বার্তা আসে জ্যোতি, ব্রতী, বিধবা ও ব্রাহ্মণগণ । এই সময় রান্না করা আহার গ্রহণ করেন না। প্রচলিত বিশ্বাস অনুযায়ী এই সময় মেয়েরা অশুচি থাকেন ।

Ambubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য

Ambubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য

একইভাবে মনে করা হয় পৃথিবী ও এই সময়কালে অশুচি থাকে, সেই জন্যই এই তিন দিন ব্রহ্মচারী, সাধু, সন্ন্যাসী, যোগী পুরুষ এবং বিধবা মহিলারা অশুচি পৃথিবীর উপর রান্না করে কিছুই গ্রহণ করেন না বিভিন্ন ফলমূল খেয়ে এই তিন দিন কাটান এইরকমই অম্বুবাচীর তাৎপর্য রয়েছে।

অম্বুবাচীর তাৎপর্য

অম্বুবাচীর তাৎপর্য: অম্বুবাচী চলাকালীন সাধারণ মানুষেরও কিছু কিছু নিয়ম মেনে চলা উচিত ।শক্তির উপাসক তথা বিভিন্ন সন্ন্যাসীরা অম্বুবাচীর প্রবৃত্তি থেকে নিবৃত্তির দিনগুলো বিভিন্ন নিয়ম মেনে অম্বুবাচীর ব্রত পালন করে থাকেন।

অম্বুবাচী শুরু হওয়ার একদিন আগে অনেকেই জল পর্যন্ত পান করেন না । অম্বুবাচী শুরু হওয়ার পূর্বে একটি বড় পাত্রে জল সংরক্ষণ করে রাখে । অম্বুবাচী সময় সমাপ্ত হলে অম্বুবাচীর মধ্যে ব্যবহার করা বস্ত্র এমন কি শয্যা সামগ্রী ও ঘর পরিষ্কার করে পরিষ্কার বস্ত্র ধারণ করেন।

Ambubachi Story in Bengali || নিয়ম

Ambubachi Story in Bengali : নিয়ম: সংসারের মঙ্গলের কথা ভেবে অম্বুবাচীর দিনে কিছু নিয়ম পালন করা উচিত। শাস্ত্রমতে অম্বুবাচী চলাকালীন যে কোনো শুভ কর্ম নিষিদ্ধ রয়েছে । অম্বুবাচী চলাকালীন দেবী মূর্তি বা বিগ্রহ স্পর্শ করা উচিত নয় ,এমনকি মায়ের মূর্তিতে সিঁদুরও দিতে নেই ।

Ambubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য
Ambubachi Story in Bengali || অম্বুবাচীর তাৎপর্য

বিশেষত আদি শক্তি মহামায়া যে কোনো রূপ যেমন মা কালী, মা দুর্গা (Ma durga), মা চন্ডী, দেবী বিপদতারিনী, জগধাত্রী ইত্যাদি কোন মূর্তিতে সিঁদুর বা স্পর্শ করা উচিত নয়। বহু মন্দিরে অম্বুবাচী চলাকালীন মূর্তি লাল কাপড় দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়। এবং দর্শন করতেও দেওয়া হয় না যদি দেব-দেবীর ছবি থাকে তাহলে ঢেকে দেওয়ার প্রয়োজন হয় না।

Pratidin24ghanta.com

RELATED ARTICLES

Most Popular

close