শুক্রবার, মে 24, 2024
HomeNewsএক মাসের মধ্যে কোটিপতি হতে পারে এই ব্যবসা শুরু করুন

এক মাসের মধ্যে কোটিপতি হতে পারে এই ব্যবসা শুরু করুন

এক মাসের মধ্যে কোটিপতি হতে পারে এই ব্যবসা শুরু করুন

Dairy Farm: আপনি কি গো-পালন করে নিজের ভাগ্য কে বদলাতে চান আর কম সময়ে কোটিপতি হবার ইচ্ছে রয়েছে। তাহলে আমাদের এই নিবন্ধটি অবশ্যই পড়তে হবে। কিভাবে কমার্শিয়াল ভাবে একটি Dairy Farm করা যায় । আমরা অনেক কিছু ভাবি , নানারকমের টেকনোলজি দেখি কিন্তু আধুনিক পদ্ধতিতে কিভাবে গরুর খামার করব সেই নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব আজকের এই নিবন্ধের মাধ্যমে ।

আজ থেকে প্রায় ১০-১২ বছর আগে কমার্শিয়াল ভাবে গরু পালন হতো কিন্তু এখন সচরাচর দেখা যায় না। কারণ এখন আরও আধুনিক হয়ে গেছে মানুষ। যেমন ছাগলের ফার্ম করছে, মুরগির ফার্ম প্রভৃতি নানান গৃহপালিত পশুর ফার্ম করা হচ্ছে কমার্শিয়াল ভাবে। কিন্তু সেই সাথে সাথে গরুর খামার এরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে বর্তমানে যেমন অন্যান্য পশু ফার্মের সংখ্যা বেশি দেখা যায় তেমনি গরু পালনের ফার্মের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

Dairy Farm
Dairy Farm

Beautiful Radha Krishna Images HD

Create a Dairy Farm || পরিকল্পনা

Create a Dairy Farm || পরিকল্পনা:  বিশেষ অনুসন্ধান অনুসারে সমস্ত দেশের মধ্যে আমাদের দেশ ভারতে প্রথম দুধ উৎপাদনে প্রথম স্থান রয়েছে। আর গরুর ফার্ম এর পরিমাণও বেশি রয়েছে। তাই ভারত প্রায় ১৯.৫% দুধ উৎপাদন করে থাকে। একটি গো ফার্ম উন্নত মানের পরিকল্পনা করার আগে গরু সম্বন্ধে জানকারি থাকা অবশ্য রয়েছে এর পাশাপাশি মার্কেটিং তথা প্রচার প্রসার ইত্যাদি বিষয়ে জ্ঞান থাকা অত্যন্ত আবশ্যক। একটি Dairy Farm এ যেমন অনেক অর্থ উপার্জন করা যায় তেমনি পরিশ্রমও থাকে।

শুরু করা

শুরু করাঃ  একটা ডেইরি ফার্ম শুরু করতে গেলে দুটো গাভীকে নিয়ে শুরু করুন, আপনার দুটোতেও চেয়ে পরিশ্রম হবে দশটা গাভী পালন করলেও সেই একই পরিশ্রম হবে। আপনি যদি ফার্মের নতুন হয়ে থাকেন তাহলে দুটো গাভী থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবেন আর আপনি আগে গিয়ে ফার্মটাকে বাড়াতে পারবেন। এই থেকে জানতে পারবেন কতটা টাইম দিতে হবে, কেমন পরিশ্রম করতে হবে, দুধের মার্কেটিং কোথায় করা যাবে, সম্পূর্ণ বিষয়ের উপর একটা জানকারি চলে আসবে এবং পরবর্তী সময়ে ডেইরি ফার্মে গাভীর সংখ্যা বাড়াতে পারবেন।

Dairy Farm

Dairy Farm

ডেইরি ফার্মে দুধের পরিমাণ Dairy Farm

ডেইরি ফার্মে দুধের পরিমাণঃ  একটি বিদেশি গাভী গরু গুলো দুবছর পর্যন্ত দুধ দিয়ে থাকে। কিন্তু প্রায় এক বছর এক ভাবেই দুধ দিয়ে থাকে পরবর্তী সময়ে কিছুটা কমলেও অথবা গাভীন হয়ে গেল আট মাস নয় মাস পর্যন্ত দুধ দেয় এটাই বিদেশি গরুর সব থেকে ভাল দিক । এছাড়াও আমাদের দেশেও বিভিন্ন প্রজাতির উন্নত মানের গাভী রয়েছে যাদের আমরা দেশি গাভী বলে থাকি। এরা সাধারণত তিন থেকে চার বছর এরও বেশি পর্যন্ত দুধ দিয়ে থাকে। তবে বিদেশী গাভী ও গরুর থেকে দেশি গাভী গরুর দুধের পরিমাণ কম হলেও তার দুধের মূল্য বেশি পাওয়া যায়। তাই বেশিরভাগ ডেইরি ফার্মে বিদেশী গাভী গরুর পরিমাণ বেশি দেখা যায়।

বৃহৎ ডেইরি ফার্ম নির্মাণের ব্যবসা

বৃহৎ ডেইরি ফার্ম নির্মাণের ব্যবসাঃ  বৃহৎ আকারের ডেইরি ফার্ম এর জন্য আপনাকে বড় রকমের ধন দিয়ে এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন। ব্যবসায় মহিষ পালন বা গাভী গরু পালন করে একটি বৃহৎ আকারে ডেইরি ফার্ম নির্মাণ করতে পারবেন। প্রায় 25 লাখ থেকে 30 লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করতে পারেন। এবং ফার্মে ১৫ থেকে ২০ টি গাভী বা মহিষ পালন করতে পারবেন। যদি ১৫টি গাভী ১২ লিটার করে দুধ দেয় দিনে তাহলে সর্বমোট 180 লিটার দূর হবে। এবং এক মাসে কমপক্ষে ৫৪০০ লিটার দুধের মূল্য কমপক্ষে 162,000 মাসিক আয় হবে। এর সাথে সাথে ডেইরি ফার্মের বিকাশ ও উন্নতি অগ্রগামী হবে।

 

মাঝারি ডেইরি পরিকল্পনা

মাঝারি ডেইরি পরিকল্পনাঃ  একটি মাঝারি ডেইরি নির্মাণ পরিকল্পনা করলে কমপক্ষে 10 থেকে 15 লক্ষ টাকা প্রয়োজন রয়েছে। সেখানে দশটি গাভী গরু রাখার ব্যবস্থা রাখতে হবে । গাভীগুলোকে সময়মতো খাবার এবং দেখভাল করার সুব্যবস্থা রাখা সহ চিকিৎসা ব্যবস্থা অত্যন্ত আবশ্যক রয়েছে। প্রত্যেকটি গাভী দিনে দশ লিটার দুধ দিলেও দিনে কমপক্ষে 100 লিটার দুধ হবে। পরবর্তীকালে সেই দুধের টাকা দিয়ে মাঝারি ডেইরি থেকে একটি বৃহৎ আকারে ডেইরি নির্মাণ করা সম্ভব হয়ে থাকে।

ছোট আকারের ডেইরি

ছোট আকারের ডেইরিঃ   একটি ছোট আকার ডেইরি আপনাকে একজন বড় ধরনের ব্যবসায়ী বানিয়ে দিতে পারে। একটি ছোট খামার থেকে বড় খামারে পরিণত হওয়ার জন্য বেশি দিন সময় লাগে না শুধুমাত্র পরিশ্রম প্রয়োজন হয়। একটি ছোট আকারের ডেইরিতে একটি বা দুটি মহিষ পালন করলে ধীরে -ধীরে বড় ধরনের ডেইরি তৈরি হওয়া কোনো ব্যাপার নেই। তার জন্য যে দুটো গাভী বা মহিষ পালন করবেন তাদের দিনে কমপক্ষে ১০ থেকে ১৫ লিটার দুধ দেওয়ার সক্ষম রয়েছে কিনা তা যাচাই করা অত্যন্ত আবশ্য রয়েছে।

Dairy Farm
Dairy Farm

মহিষ বা গরু ক্রয় পদ্ধতি

মহিষ বা গরু ক্রয় পদ্ধতি:  মহিষ বা গরু ক্রয় পদ্ধতি ডেইরি ফার্মে যে সমস্ত গাভী গরু বা মহিষ গুলোকে লালন-পালন করা হবে তাদের প্রজাতি বিষয়ে জ্ঞান থাকা জরুরী রয়েছে। কারণ পৃথিবীতে বিভিন্ন প্রকারের মহিষ ও গরুর প্রজাতি রয়েছে । তাদের মধ্যে কিছু প্রজাতি রয়েছে যারা খুব বেশি দুধ দিতে সক্ষম থাকেন। যেমন তারই মধ্যে বিদেশি প্রজাতির কিছু গাভী গরু রয়েছে তারা সর্বদা বেশি পরিমাণে দুধ দিয়ে থাকে। তাই মহিষ বা গাভী গরু নেওয়ার সময় নিশ্চিত করবেন যে গাভী ১০ থেকে প্রায় ১৫ লিটার দুধ দিতে পারে সেই গাভী গুলোকে রাখবেন।

উন্নত মানের খাবার ব্যবস্থা

উন্নত মানের খাবার ব্যবস্থাঃ  প্রধানত একটি ডেইরিতে উন্নত মানের খাবার ব্যবস্থা রাখতে হবে। প্রত্যেকটি মহিষ বা গাভী গরু পুষ্টিবর্ধক আহারের উপর দুধ নির্ভরশীল। সময় অনুসারে খাবারের ব্যবস্থা ও জলীয় ব্যবস্থা রাখতে হবে। এবং তাদের ঠিক মতো দেখাশোনা করলে তারা সুস্থ থাকবে। তবে প্রাকৃতিক পুষ্টিবর্ধক খাওয়ার হিসাবে তাজা ঘাস, শুকনো চারা এবং লতা জাতীয় পদার্থ। কিন্তু অনেক কারণে এই সমস্ত খাবারের কমি হওয়ার কারণে বিভিন্ন কোম্পানির দ্বারা উন্নত মানের আহার পাওয়া যায়।

স্থান নির্বাচন

স্থান নির্বাচনঃ যে কোন ডেইরি বা খামার নির্মাণ করার আগে তার সঠিক স্থান বেছে নেবেন। সেই স্থানে মূলত সম্পূর্ণ ধরনের ব্যবস্থা থাকতে হবে। যে ভূমিতে আপনি নির্মাণ করবেন সেখানে যেন বিশেষ করে জলের সমস্যা বা প্রাকৃতিক সমস্যা না হয়। সেই স্থানে আশেপাশে পালিত পশুদের ঘোরাফেরা করানোর জন্য ঠিক মত জায়গা ও গ্রীষ্মকালে সূর্যের প্রচণ্ড তাপ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য গাছপালা ইত্যাদির প্রয়োজন।

ডেইরি নির্মাণ পদ্ধতি

ডেইরি নির্মাণ পদ্ধতিঃ  যেকোনো দুগ্ধ জাতীয় ডেইরি নির্মাণের জন্য তার বিশেষ পদ্ধতি রয়েছে। যাতে সেখানে পালিত পশুরা খুব ভালোভাবে থাকতে পারে। সাধারণত গৃহপালিত পশুরা যেকোনো ছাদের নিচেই সহজে থাকতে পারে। এছাড়াও টিনের ছাউনিতেও রাখা যায়। আবার সেই ছাদের নিচে পরিমাপ অনুসারে বক্স তৈরি করে দেওয়া যাতে তারা ভালোভাবে খাদ্য গ্রহণ করতে পারে। এবং বক্সে পশুর খাদ্য সামগ্রি সবসময় রাখতে হবে। ডেইরির ভিতরে কয়েকটি কক্ষ নির্মাণ করবেন যার মধ্যে অগ্রিম খাবার রাখা থাকবে। এবং দেখভাল করার জন্য একজন বা দুইজন ব্যক্তি সর্বদা উপস্থিত থাকা দরকার।

ব্যবসার জন্য লাইসেন্স এবং রেজিস্ট্রেশন

ব্যবসার জন্য লাইসেন্স এবং রেজিস্ট্রেশনঃ  আমাদের দেশে প্রত্যেকটি ব্যবসার জন্য লাইসেন্স এবং রেজিস্ট্রেশনের প্রয়োজন হয়। যখন আপনার ব্যবসা উন্নতির দিকে অগ্রগামী হবে তখন ব্যবসার লাইসেন্স করা অত্যন্ত প্রয়োজন রয়েছে। তার জন্য আপনাকে ট্রেড লাইসেন্স বানাতে হবে। তার জন্য সর্বপ্রথম আপনার ডেইরির একটি নির্দিষ্ট নাম কোম্পানির জন্য নির্ধারণ করতে হবে। তারপর আপনি লাইসেন্সের জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে পারেন |

Thank you 

RELATED ARTICLES

Most Popular

close